টেলিগ্রাম থেকে টাকা ইনকাম করার উপায় | How to Earn Money From Telegram in Bengali

টেলিগ্রাম (Telegram) এখন অনেক জনপ্রিয় হয়েছে। শুধু তাই নয় এথেকে অনেকেই টাকাও ইনকাম করছে। কিন্তু কিভাবে? আজকের এই আর্টিকেলে টেলিগ্রাম থেকে টাকা কিভাবে ইনকাম করা যায়? Earn Money From Telegram in Bengali- এবিষয়ে জানানো হবে। আপনিও যদি টেলিগ্রাম থেকে পয়সা কামানোর কথা ভাবছেন, তাহলে আর্টিকেলটি পুরো পড়ুন বুঝে যাবেন।

আজকের দিনে সকলেই ঘরে বসে নিজের মোবাইল বা কম্পিউটার থেকে টাকা ইনকাম করতে চাইছে। আমরা টেকনোলজির এমন এক সময়ে বাস করছি যেখানে খুব সহজেই অনলাইন থেকে ইনকাম করা সম্ভব।

এমন অনেক মোবাইল অ্যাপ (Mobile App) রয়েছে যেগুলো আমরা প্রতিদিন ব্যবহার করি। শুধু তাই নয় এগুলো থেকে আমরা টাকাও ইনকাম করতে পারি। তবে টাকা ইনকাম করার সঠিক উপায় সম্পর্কে আমাদের জানতে হবে।

How to Earn Money From Telegram

আপনি যদি টেলিগ্রাম ব্যবহার করে থাকেন তাহলে অবশ্যই জেনে থাকবেন টেলিগ্রাম কি এবং টেলিগ্রাম আমাদের কি কাজে লাগে। আপনার যদি মনে হয় টেলিগ্রাম থেকে আবার কিভাবে ইনকাম করা যায় তাহলে আজকের আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পড়লেই আপনি খুব সহজেই বুঝতে পারবেন।

টেলিগ্রাম কি?

টেলিগ্রাম সাধারণত হোয়াটসঅ্যাপের মতোই একটি জনপ্রিয় ম্যাসেজিং অ্যাপ। যার মাধ্যমে আমরা অডিও, ভিডিও, ছবি, বিভিন্ন ধরনের ফাইল যেমন পিডিএফ অন্যজনকে পাঠাতে পারি।

টেলিগ্রাম অ্যাপ Android, Windows, IOS ইত্যাদি প্লাটফর্মে উপলব্ধ রয়েছে। বর্তমান সময়ে টেলিগ্রাম ব্যবহারকারীর সংখ্যা এবং জনপ্রিয়তা দিনের পর দিন বেড়েই চলেছে।

টেলিগ্রামের সাথে হোয়াটসঅ্যাপ এর প্রধান পার্থক্য হল টেলিগ্রামে আমরা একটি গ্রুপে অসংখ্য মেম্বার অ্যাড করতে পারি যেটা হোয়াটসআপে সম্ভব না। সেই সাথে টেলিগ্রামের একটি দারুণ ফিচার হলো সিক্রেট চ্যাট এবং নতুন টেলিগ্রাম চ্যানেল। আজকে আমরা মূলত টেলিগ্রাম চ্যানেল বানিয়ে তাতে কিভাবে ইনকাম করা যায় সেই বিষয়েই বিস্তারে জানতে চলেছি।

টেলিগ্রাম চ্যানেল কিভাবে বানানো যায়?

টেলিগ্রাম থেকে টাকা ইনকাম করার আগে সর্ব প্রথমেই আপনাকে নতুন টেলিগ্রাম চ্যানেল বানাতে হবে। টেলিগ্রাম চ্যানেল বানানোর স্টেপ বাই স্টেপ পদ্ধতিগুলি নিচে জানানো হলো।

প্রথম স্টেপ

সর্বপ্রথম টেলিগ্রাম অ্যাপটি প্লে স্টোর থেকে মোবাইলে ডাউনলোড করে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে।

দ্বিতীয় স্টেপ

টেলিগ্রাম অ্যাপ ডাউনলোড করার পর মোবাইল নম্বর দিতে হবে। এরপর ওটিপি (OTP) আসবে। ওটিপি দেওয়ার সাথে সাথেই টেলিগ্রামে রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে।

তৃতীয় স্টেপ

টেলিগ্রাম অ্যাপের নিচের ডান দিকের পেন্সিল আইকনের উপর ক্লিক করলে নিউ চ্যানেল লেখা দেখতে পাবেন এবং সেখানে ক্লিক করতে হবে।

চতুর্থ স্টেপ

এরপর আপনাকে চ্যানেল এর নাম এবং ডেসক্রিপশন ফিলাপ করতে হবে।

পঞ্চম স্টেপ

চ্যানেল বানানো সম্পূর্ণ হলে এই চ্যানেলে আপনাকে নতুন নতুন মেম্বার জয়েন করতে হবে।

টেলিগ্রাম থেকে টাকা কিভাবে ইনকাম করা যায়?

টেলিগ্রাম থেকে টাকা ইনকাম করার বেশ কিছু কমন উপায় সম্পর্কে এইবার আমরা জানবো। টেলিগ্রাম চ্যানেল বানিয়ে গ্রো করাতে পারলে আপনার সামনে ইনকাম করার অনেক রাস্তা খুলে যায়। আপনি অনেক ভাবেই টেলিগ্রাম থেকে টাকা ইনকাম করতে পারেন। এর মধ্যে জনপ্রিয় এবং প্রমানিত কয়েকটি উপায় সম্পর্কে নিচে জানানো হয়েছে। সেগুলি কি কি জেনে নিন-

(1) লিংক শর্টনার

ধরুন আপনি কোন নিউজ ওয়েবসাইটের লিংক আপনার টেলিগ্রাম চ্যানেলে শেয়ার করছেন। আপনি যেই লিংক আপনার টেলিগ্রাম চ্যানেলে শেয়ার করুন না কেন সেটিকে লিংক শর্টনার ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে শর্ট করে আপনার চ্যানেলে পোষ্ট করবেন। এক্ষেত্রে এমন অনেক লিংক শর্টনার এডভারটাইজমেন্ট প্রোগ্রাম রয়েছে যেগুলো আপনার লিংকে ক্লিক করার পরে কিছু অ্যাড দেখায় এবং তার ভিত্তিতে আপনার ইনকাম হবে।

(2) আর্নিং অ্যাপ শেয়ার

এমন অনেক আর্নিং অ্যাপ রয়েছে যেগুলো প্রতি ডাউনলোড এবং রেজিস্ট্রেশনে কিছু পরিমাণ টাকা দেয়। এগুলো আপনি আপনার টেলিগ্রাম চ্যানেলে শেয়ার করে টাকা ইনকাম করতে পারেন।

(3) অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং

টেলিগ্রাম থেকে টাকা ইনকাম করার দারুন একটি উপায় হলো অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং। এক্ষেত্রে আপনাকে এমন কোন অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রাম এর সঙ্গে জয়েন হতে হবে যারা তাদের প্রোডাক্ট সেল করার জন্য কমিশন দেয়। আপনি amazon, flipkart এর মতো কোম্পানির অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রাম জয়েন করতে পারেন।

এতে আপনাকে বিভিন্ন প্রোডাক্টের লিংক গুলো টেলিগ্রাম চ্যানেলে শেয়ার করতে হবে। এই লিঙ্কগুলোতে ক্লিক করে কেউ কোনো কিছু কিনলে তার জন্য অ্যাফিলিয়েট কমিশন হিসেবে আপনি টাকা পাবেন।

(4) স্পনসরশিপ

এমন অনেক কোম্পানি থাকে যারা তাদের অ্যাপ ডাউনলোড বা কোনো পরিষেবার প্রমোশন করার জন্য টেলিগ্রাম চ্যানেলের অ্যাডমিনদের সাথে যোগাযোগ করে। এক্ষেত্রে আপনার যদি একটি টেলিগ্রাম চ্যানেল থাকে তাহলে স্পনসরশিপ করেও টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

(5) প্রমোশন

আপনার টেলিগ্রাম চ্যানেলে মেম্বার বা সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা বেশি থাকলে স্পনসরশিপ এর মাধ্যমে ভালো টাকা ইনকাম করা যাবে। অনেক ইউটিউবার এবং ব্লগার থাকে যারা তাদের ইউটিউব চ্যানেল এবং ব্লগ এর প্রমোশন করাবার জন্য টেলিগ্রাম চ্যানেল এর সন্ধান করে থাকে। তাই আপনি আপনার টেলিগ্রাম চ্যানেলে ইউটিউব চ্যানেল এর প্রমোশন করানোর জন্য ভালো টাকা চার্জ করতে পারেন।

(6) টেলিগ্রাম চ্যানেল বিক্রি

প্রথমে একটি টেলিগ্রাম চ্যানেল বানিয়ে তাতে রেগুলার পোষ্ট পাবলিশ করতে হবে। কিছু সময় পর যখন ঐ চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা বেশি হয়ে যাবে তখন সেটি বিক্রি করা যাবে। এই পদ্ধতিতেই এখন অনেকে ভালোই টাকা ইনকাম করছে।

টেলিগ্রাম চ্যানেল গ্রো করার উপায়

টেলিগ্রাম চ্যানেল বানানো এবং তাতে পোষ্ট পাবলিশ করা এমন কোনো ব্যাপার না। আসল বিষয় হচ্ছে, একটি টেলিগ্রাম চ্যানেলকে সঠিকভাবে কিভাবে গ্রো করা যায়। টেলিগ্রাম চ্যানেল গ্রো (Grow) বলতে এখানে সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা বাড়ানোর কথা বলা হয়েছে। টেলিগ্রাম চ্যানেলে ভালো সংখ্যার সাবস্ক্রাইবার না থাকলে বেশি টাকা ইনকাম করা কখনোই সম্ভব না।

এইবার নিচে এক এক করে টেলিগ্রাম চ্যানেল গ্রো করার বা সাবস্ক্রাইবার বাড়ানোর কয়েকটি প্রমানিত উপায় এর কথা বলবো-

(1) চ্যানেলের নাম নির্বাচন

টেলিগ্রাম চ্যানেল বানানোর আগে কোন বিষয়ে আপনি পোষ্ট পাবলিশ করতে চান সেটা ঠিক করে নিতে হবে। ধরুন আপনি ভাইরাল নিউজের পোষ্ট করার জন্য একটি টেলিগ্রাম চ্যানেল বানাতে চাইছেন। এক্ষেত্রে আপনার চ্যানেলের নামও ‘বাংলা ভাইরাল নিউজ’ এই ধরনের হতে হবে। কেননা যখন কেউ টেলিগ্রামে ভাইরাল নিউজ বা বাংলা ভাইরাল নিউজ লিখে সার্চ করবে তখন যেন টেলিগ্রামে আপনার চ্যানেলটি দেখায়।

(2) নিয়মিত পোষ্ট পাবলিশ

টেলিগ্রাম চ্যানেল বানানোর পর এমনি এমনি লোকেরা আপনার চ্যানেলে জয়েন হবে না। এর জন্য আপনাকে নির্দিষ্ট টপিকে রেগুলার পোষ্ট শেয়ার করতে হবে।

(3) আকর্ষনীয় ছবি (Thumbnail) ব্যবহার

যে ধরনের পোষ্ট আপনি আপনার টেলিগ্রাম চ্যানেলে শেয়ার করেন না কেন তার জন্য একটি আকর্ষনীয় ছবি বানাতে হবে। সেইসাথে ছবিতে নিজের টেলিগ্রাম চ্যানেলের নাম লিখতে ভুলবেন না। এটা করলে ছবিটা যখন খুব বেশি শেয়ার হবে তখন অনেকেই ছবিটি দেখবে এবং ছবিতে দেওয়া চ্যানলের নাম দেখে আপনার টেলিগ্রাম চ্যনেলে জয়েন করবে।

(4) চ্যানেল শেয়ার

আপনি আপনার ফেসবুক, ইন্সটাগ্রাম, হোয়াটসঅ্যাপ, ইউটিউব ইত্যাদি সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে টেলিগ্রাম চ্যানেলের লিংক শেয়ার করে চ্যানেলের মেম্বার সংখ্যা বাড়াতে পারবেন।

(5) নিজের ব্লগে লিংক শেয়ার

এখানে উদাহরন স্বরূপ বাংলা ভাইরাল নিউজ এর কথাই বলছি। আপনি যদি ভাইরাল নিউজের উপর একটি ব্লগ বানিয়ে তাতে নিয়মিত আর্টিকেল লিখে পাবলিশ করতে থাকেন তাহলে একটা সময় যখন আপনার ওয়েবসাইটে বা ব্লগে লোক (Visitor) আসতে শুরু করবে তখন তাদেরকে আপনার টেলিগ্রাম চ্যানেলে জয়েন করাবেন। এর জন্য প্রতিটি আর্টিকেলে টেলিগ্রাম চ্যানেলে জয়েন হওয়ার লিংক দিতে হবে।

(6) পেইড প্রমোশন

পেইড প্রমোশন বলতে টাকা দিয়ে মেম্বার সংখ্যা বাড়ানোকে বোঝায়। এর জন্য আপনাকে এমন কোনো টেলিগ্রাম চ্যানেলের অ্যাডমিনের সাথে যোগাযোগ করতে হবে যার চ্যানেলে ভালো পরিমান সাবস্ক্রাইবার রয়েছে। এক্ষেত্রে আপনাকে আপনার টেলিগ্রাম চ্যানেলের লিংক অন্য কোনো লোকের টেলিগ্রাম চ্যানেলে শেয়ার করার জন্য তাকে কিছু পরিমান টাকা দিতে হবে।

সবশেষে,

টেলিগ্রাম চ্যানেল বানিয়ে ইনকাম কিভাবে করা যাবে? এই টপিকে লেখা আজকের আর্টিকেলটি সম্পুর্ণ হল। আপনি যদি টেলিগ্রাম চ্যানেল বানিয়ে টাকা ইনকাম করতে চান অথবা আপনার ইতিমধ্যেই টেলিগ্রাম চ্যানেলে থেকে থাকে তাহলে উপরে বলা উপায়গুলি থেকে আপনিও টাকা ইনকাম করা শুরু করতে পারেন।

এই ধরনের অনলাইন ইনকাম, কর্মমুখী স্কিল, রোজগারের উপায়, পার্সোনল ফাইনান্স সম্পর্কে নিত্য নতুন তথ্য জানতে চাইলে আমাদের ওয়েবসাইট বাংলা রোজগার নিয়মিত ভিজিট করুন।

Previous articleOLX থেকে প্রতি মাসে ১০ হাজার টাকা কিভাবে ইনকাম করা যাবে?