হোয়াটসঅ্যাপ (WhatsApp) থেকে টাকা ইনকাম- সম্পূর্ন প্রক্রিয়া বাংলায়

সত্যিই কি হোয়াটসঅ্যাপ থেকে টাকা ইনকাম করা যায়? আজকে আমরা এ বিষয়ে জানবো। আমার মনে হয় এমন কোনো লোক নেই যার কাছে মোবাইল রয়েছে অথচ সে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করেনা। আপনিও অবশ্যই হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করেন। আমি যদি বলি আপনি আপনার হোয়াটসঅ্যাপ থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন তাহলে তাহলে সেটা ভুল হবে না।

হোয়াটসঅ্যাপ মূলত একটি সোশ্যাল মেসেজিং (Social Massaging) প্লাটফর্ম। যেখানে আমরা অন্যজনকে টেক্সট ম্যাসেজ, ভিডিও, ইমেজ ডকুমেন্ট ইত্যাদি ধরনের ফাইল পাঠাতে পারি। বেশিরভাগ সময় আমরা হোয়াটসঅ্যাপ এর মাধ্যমে বন্ধুবান্ধব, আত্মীয়-স্বজন বা কাছের কোনো মানুষের সাথে চ্যাটিংই করে থাকি।

প্রথমেই জানিয়ে রাখি, হোয়াটসঅ্যাপ থেকে সরাসরি কিন্তু টাকা ইনকাম করা যায় না। হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করে আমরা পরোক্ষভাবে হোয়াটসঅ্যাপকে কাজে লাগিয়ে টাকা ইনকাম করতে পারি। কথাটা ঠিক হজম হচ্ছে না, তাই না। আজকের এই আর্টিকেলে আমরা এই বিষয়ে বিস্তারিত ভাবে জেনে নেবো। আর্টিকেলটি শেষ পর্যন্ত পড়ে নিলে আশা করি আপনিও হোয়াটসঅ্যাপ থেকে ইনকাম করার বিষয়টি বুঝতে পারবেন।

whatsapp theke taka income korar upai

হোয়াটসঅ্যাপ থেকে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায়

হোয়াটসঅ্যাপ সাধারণত একটি মেসেজিং অ্যাপ। আমরা হোয়াটসঅ্যাপ এর মাধ্যমে আমাদের কাছের মানুষদের সাথে, আত্মীয়দের সাথে এবং বন্ধু-বান্ধবদের সাথে চ্যাট করার পাশাপাশি ছবি, ভিডিও ইত্যাদি শেয়ার করে থাকি। আর এর জন্য হোয়াটসঅ্যাপ কোন টাকা চার্জ করে না অর্থাৎ আমরা সম্পূর্ণ ফ্রিতে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করতে পারি।

এখন প্রশ্ন হলো হোয়াটসঅ্যাপ থেকে আমরা কিভাবে টাকা ইনকাম করতে পারি। হ্যাঁ এটা সত্যি যে হোয়াটসঅ্যাপ থেকে সরাসরি টাকা পাওয়া যায় না। কিন্তু আমরা হোয়াটসঅ্যাপ কে সঠিকভাবে ব্যবহার করে ভালো টাকা ইনকাম করতে পারি। এই বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই। এবার আমরা হোয়াটসঅ্যাপ থেকে ইনকাম করার বেশ কয়েকটি উপায় সম্পর্কে জানবো যেগুলি সঠিকভাবে ব্যবহার করে আপনিও ইনকাম করতে পারেন।

হোয়াটসঅ্যাপ থেকে টাকা ইনকাম করার জন্য কি দরকার?

আপনি যদি হোয়াটসঅ্যাপ থেকে সত্যিই টাকা ইনকাম করতে চান তাহলে আপনার এই জিনিসগুলো খুবই দরকার পড়বে।

১. একটি স্মার্ট ফোন

২. ভালো ইন্টারনেট কানেকশন

৩. হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ (অনেক মেম্বার সহ)

হোয়াটসঅ্যাপ থেকে টাকা ইনকাম করার উপায়

হোয়াটসঅ্যাপ থেকে টাকা ইনকাম করার জন্য আপনার এমন অনেক লোকের নাম্বার দরকার যারা হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করে। এই সমস্ত হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের আপনি বিভিন্ন হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ থেকে পেয়ে যাবেন। এর জন্য আপনাকে বিভিন্ন হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে নিজেকে এড করতে হবে এবং সেখান থেকেই আপনি মেম্বার নিতে পারবেন। এবার আমরা হোয়াটস অ্যাপ থেকে টাকা ইনকাম করার সম্পর্কে জানবো।

হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ থেকে টাকা ইনকাম

হোয়াটসঅ্যাপ থেকে টাকা ইনকাম করার মানে হচ্ছে হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ থেকে টাকা ইনকাম। হোয়াটসঅ্যাপে গ্রুপই হচ্ছে এমন জায়গা যেখানে একসাথে অনেক মেম্বার বা লোক থাকে। আমরা সকলেই জানি যে একটি হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে 257 জন মেম্বার যুক্ত থাকতে পারে। বিভিন্ন গ্রুপের মেম্বার গুলোকে আপনি আপনার নিজের গ্রুপে এড করাতে পারবেন।

কিন্তু এখন প্রশ্ন হলো আমরা এতগুলো লোক বা মেম্বারকে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে কিভাবে যুক্ত করাবো? এইবার আমরা এমন কিছু টিপস বলব যে গুলি আপনাকে গ্রুপে মেম্বার যুক্ত করার জন্য সাহায্য করবে।

১. সর্বপ্রথম আপনি আপনার বন্ধুবান্ধব, আত্মীয়স্বজনদেরকে একটি ভালো হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ বানানোর কথা বলুন। যেখানে যুক্ত থাকলে সকলের সুবিধা হবে। তাদেরকে আরো বলবেন যে, এই গ্রুপের লিংক তারা যেন তাদের পরিচিত লোকেদের সাথে শেয়ার করে।

২. আপনি আপনার গ্রুপের মেম্বার সংখ্যা তাদের সাহায্য নিয়ে সহজেই বাড়াতে পারবেন।

৩. হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপের মেম্বার সংখ্যা বাড়াতে আপনি ফেসবুকের সাহায্য নিতে পারেন। ফেসবুকে এমন অনেক গ্রুপ রয়েছে যেখানে আপনি আপনার হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপের লিংক শেয়ার করে মেম্বার সংখ্যা বাড়াতে পারেন।

৪. এছাড়া বিভিন্ন সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং প্লাটফর্ম ব্যবহার করে আপনি আপনার হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপের মেম্বার বাড়াতে পারবেন।

এক্ষেত্রে অবশ্যই আপনাকে ধৈর্য ধরে রাখতে হবে। কেননা রাতারাতি হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপের মেম্বার বাড়বেনা এবং প্রথম দিন থেকেই আপনার ইনকাম শুরু হবে না। এর জন্য আপনাকে প্রতিনিয়ত নতুন নতুন কনটেন্ট হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে পাবলিশ করতে হবে। এরপর দেখবেন আপনার গ্রুপের মেম্বার সংখ্যা আপনা আপনি বাড়ছে।

আমি জানি আপনার এখন খুব বিরক্ত বোধ করছেন। আপনার বিরক্ত না বাড়িয়ে এইবার নিচে আমরা হোয়াটসঅ্যাপ থেকে ইনকাম এর সঠিক কয়েকটি উপায় নিয়ে আলোচনা করছি।

Link Shortner এর ব্যবহার করে টাকা ইনকাম

অনেক গুলির মধ্যে এই পদ্ধতিটি অনেক সহজ। এর মাধ্যমে জনপ্রিয় কিছু ওয়েব সাইট এর লিঙ্ক শর্ট করা হয়। শর্ট করা লিংকটি হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে শেয়ার করে তাতে ক্লিক এর উপর ভিত্তি করে ইনকাম হয়। সোজা কথায় বলতে পারেন, যত বেশি লিংকে ক্লিক হবে তত বেশি আপনার ইনকাম হবে। বিভিন্ন লিঙ্ক শর্টনার (Link Shortner) ওয়েবসাইট গুলি হল-

১. Shorte.st

2. ouo.io

3. Linkbucks.com

4. ads.fly

5. Linkshrink.net

এটি ব্যবহার করে বেশি টাকা ইনকাম করার জন্য আপনাকে ইন্টারনেট ঘাটাঘাটি বা রিসার্চ করতে হবে। আপনাকে দেখতে হবে বর্তমান সময়ে কোন টপিকটি মানুষ বেশি দেখছে। কোন ভিডিও ভাইরাল হচ্ছে, কোন ওয়েবসাইটের জনপ্রিয়তা বেশি ইত্যাদি। এগুলোকে খুঁজে বার করে তাদের লিংক শর্ট করে আপনি আপনার হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে শেয়ার করতে পারেন।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে ইনকাম

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং হলো হোয়াটসঅ্যাপ থেকে ইনকাম করার আরও একটি ভালো উপায়। যারা অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং সম্পর্কে জানেন না তাদেরকে জানিয়ে দিই, অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং হল অন্য কোনো কোম্পানির জিনিসপত্র বিক্রি করা। এক্ষেত্রে বিভিন্ন কোম্পানিগুলো তাদের প্রোডাক্ট অনলাইনের মাধ্যমে বিক্রি করার জন্য কমিশন হিসেবে টাকা দিয়ে থাকে। অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করেও হোয়াটসঅ্যাপ থেকে কমিশনের মাধ্যমে সহজে ইনকাম করতে পারবেন।

এমন অনেক কোম্পানি আছে যারা তাদের প্রোডাক্ট বিক্রির জন্য উৎসাহিত করে থাকে। এই জন্য বিভিন্ন কোম্পানিগুলি তাদের অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রাম চালু করেছে। অ্যাফিলিয়েট প্রোডাক্ট গুলোর লিংক বিভিন্ন হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে শেয়ার করলে লিংকে ক্লিক করে যদি কেউ সেগুলি কেনে তাহলে তার ভিত্তিতে কিছু কমিশন পাওয়া যায়। সহজ হিসাব হচ্ছে যত বেশি বিক্রি ততবেশি কমিশন এবং তত বেশি ইনকাম।

এমন কিছু কোম্পানি যেগুলি অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রাম সাপোর্ট করে, নিচে জানিয়ে দিয়েছি-

১. Amazon.com

2. Flipkart.com

3. Payoom.com

4. Snapdeal.com

রিচার্জ অ্যাপ রেফার করে ইনকাম

বিভিন্ন রিচার্জ অ্যাপ গুলি রেফার করার মাধ্যমে হোয়াটসঅ্যাপের সাহায্যে টাকা ইনকাম সম্ভব। এখানে সমস্যা হচ্ছে এখানে টাকা সরাসরি পাওয়া যায় না। তবে ফ্রি রিচার্জ পেটিএম ক্যাশ এবং অন্যান্য বিভিন্ন সুবিধা পাওয়া যায়।

রিচার্জ অ্যাপ গুলোর রেফারেল লিংক আপনি আপনার হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে শেয়ার করবেন। আপনার রেফারেল লিঙ্কে ক্লিক করে কেউ ডাউনলোড এবং রেজিস্টার করলে আপনি কিছু পয়েন্ট বা ক্রেডিট পাবেন যেগুলো ব্যবহার করে রিচার্জ এবং শপিং করতে পারবেন।

তবে সত্যি কথা হচ্ছে, দীর্ঘ সময়ের জন্য এটি টাকা ইনকাম করার সঠিক উপায় না। তবে আপনি আপনার ফাঁকা সময়ে কিছু টাকা বা ফ্রি রিচার্জ আয় করতে চাইলে এটি ব্যবহার করতে পারেন। বেশকিছু অ্যাপ রয়েছে যেগুলি জেনুইন এবং টাকা দিয়ে থাকে। এমন কিছু অ্যাপ হল-

১. Taskbucks

2. Ladoo

3. Earn Talktime

4. TrueBalance

ইউটিউব এবং ওয়েবসাইট প্রমোশন করে ইনকাম

আপনি আপনার হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে ইউটিউব চ্যানেল এবং ওয়েবসাইটের প্রমোশন করিয়েও টাকা ইনকাম করতে পারবেন। এর জন্য আপনার অনেকগুলো হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ এবং কন্টাক্ট থাকা দরকার। বিভিন্ন ইউটিউবার এবং ব্লগারদের সাথে সম্পর্ক করে তাদেরকে আপনি আপনার হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ এবং কন্টাক্ট সম্পর্কে জানাতে পারেন। ওদেরকে আপনার হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে প্রমোশন করানোর জন্য একটা নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা চার্জ করবেন।

এমন অনেক নতুন ব্লগার এবং ইউটিউবার থাকে যারা তাদের ভিউজ বাড়ানোর জন্য আপনার মতো লোকেদের সন্ধান করে থাকে। যদি কিছু টাকায় তারা তাদের ভিউজ বা ট্রাফিক বাড়াতে পারে তাহলে আপনার অফার তারা রিজেক্ট করবে না।

পেইড প্রমোশন করে ইনকাম

যদি আপনার ভালো মানের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ এবং তাতে ভালো সংখ্যক মেম্বার সংখ্যা থাকে তাহলে আপনি অন্যদের জন্য প্রমোশন করতে পারবেন। এক্ষেত্রে প্রমোশন করার জন্য আপনি তাদের কাছ থেকে টাকা চার্জ করতে পারেন। আপনার গ্রুপের টপিক অনুযায়ী বহু লোক প্রমোশন করার জন্য আপনার সঙ্গে যোগাযোগ করবে।

নিজের প্রোডাক্ট বিক্রি করে হোয়াটসঅ্যাপ থেকে টাকা ইনকাম

যদি আপনার নিজস্ব কোনো ব্যবসা থাকে তাহলে হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে সেটিকে বড় করতে পারেন। এর জন্য হোয়াটসঅ্যাপের একটি নতুন অ্যাপ লঞ্চ হয়েছে যেটি হোয়াটসঅ্যাপ বিজনেস নামে পরিচিত। হোয়াটসঅ্যাপ বিজনেস অ্যাপ এ আপনি আপনার ব্যবসার বিভিন্ন তথ্য দিতে পারবেন। সেখানে গ্রুপ বানিয়ে মেম্বার যুক্ত করে আপনি আপনার ব্যবসার প্রোডাক্টের প্রমোশন করতে পারেন। সেক্ষেত্রে আপনার সম্পূর্ণ লাভটাই নিজের পকেটে ঢুকবে।

অনলাইন টিচিং করে টাকা ইনকাম

আপনি যদি কোনো একটি নির্দিষ্ট বিষয়ে পারদর্শী হন এবং আপনার যথেষ্ট জ্ঞান থাকে তাহলে আপনি ওই বিষয়ে অনলাইনে পড়াতে পারেন। আপনার জ্ঞনা বা নলেজ কাজে লাগিয়ে অনলাইন টিচিং করিয়ে অফলাইনের থেকেও বেশি টাকা ইনকাম করতে পারবেন। হোয়াটসঅ্যাপের বিভিন্ন গ্রুপে আপনার পারদর্শিতার কথা বা পড়ানোর কথা জানাতে পারবেন। লোকজন আপনাকে চিনবে এবং দরকার অনুযায়ী ইন্টারেস্টেড হলে আপনার সঙ্গে যোগাযোগ করবে।

আজকে যা জানলাম

আজকে আমরা হোয়াটসঅ্যাপ থেকে টাকা ইনকাম সম্পর্কে জানলাম। আশা করি, আমি হোয়াটসঅ্যাপ থেকে ইনকাম সম্পর্কিত তথ্য আপনাদের সঙ্গে বোধগম্য ভাবে উপস্থাপন করতে পেরেছি।

অনেকেই ঘন্টার পর ঘন্টা হোয়াটসঅ্যাপে মেসেজ করে বা স্টোরি দেখে সময় নষ্ট করে। আমাদের উদ্দেশ্য হল মানুষের মধ্যে অনলাইন ইনকাম সম্পর্কিত সচেতনতা বৃদ্ধি করা। তাই যদি কারো মনে হয় যে এই পোস্টটি থেকে বেশ কিছু জিনিস জানার আছে, তাহলে আপনি আপনার আত্মীয়স্বজন বা বন্ধু বান্ধবদের সাথে এটিকে শেয়ার করে দেবেন।

আশাকরি হোয়াটস অ্যাপ থেকে টাকা ইনকাম সম্পর্কিত বিষয়গুলি আপনি বুঝতে পেরেছেন। এই বিষয়ে যদি আপনার কোন প্রশ্ন বা মতামত থাকে তাহলে নিচে কমেন্টের মাধ্যমে আমাদের জানাবেন। রোজগার বা ইনকাম সম্পর্কিত বিভিন্ন তথ্য পাওয়ার জন্য নিয়মিত আমাদের ওয়েবসাইটে ভিজিট করতে ভুলবেন না।

Previous articleঘরে বসে টাকা ইনকাম, 6 উপায়ে ইনকাম করার সুযোগ
Next article4 টি পার্ট টাইম কাজ, শুরুতে ১৫-২০ হাজার টাকা মাসিক ইনকাম